​মুভি:Dhanak(রঙধনু)

মুক্তিকাল:২০১৫
জনরা:ড্রামা

রানটাইম:১ঘন্টা ৪৭মিনিট

আইএমডিবি রেটিং:৮.১

ব্যক্তিগত রেটিং:৮.৫

.

.

≠বলিউড ইন্ডাস্ট্রি যুগের সাথে তাল মিলিয়ে আগের চেয়ে অনেক উন্নতি করেছে। তবে আমার মন জয় করতে পেরেছে বলিউডে এমন মুভির সংখ্যা হাতেগনা। সবশেষ সম্ভবত ‘Udaan’ আমার কাছে এতোটা ভালো লেগেছিল। আর আজকে দেখলাম Dhanak(রঙধনু)।

.

.

≠কাহিনী সংক্ষেপন: বাবা-মা হারা দুই ভাই-বোন ‘ছোটু’ আর ‘পারী’। ছোটুর বয়স আট বছর আর পারী’র দশ। ছোটুর বয়স যখন চার তখন হঠাৎই সে চোখের দৃষ্টিশক্তিতে প্রতিবন্ধকতা অনুভব করে। এরপর আস্তে আস্তে কিছুদিনের মধ্যেই সে পুরোপুরি অন্ধ হয়ে যায়। তাই ছোট ভাইয়ের চোখের আলো ফিরে পাবার জন্য পারী ছোটুকে নিয়ে না বলে বাসা থেকে বের হয়। তার বিশ্বাস,শাহরুখ খানই পারে তার ছোট ভাইকে চোখের অপারেশনের টাকা দিয়ে সাহায্য করতে। তাই সে বিভিন্ন শ্যুটিং স্পটে যাবার চেষ্টা করে,তার ভাইকে নিয়ে। রাজস্থান পুরোটা পাড়ি দেয় ছোটুকে নিয়ে। পথিমধ্যে ঘটে নানা রোমাঞ্চকর ঘটনা। তাছাড়া মুভিতে পিচ্চিটার গাওয়া অসাধারণ গানও আপনার মন ঠান্ডা করে দিবে।

.

.

≠অভিনয়: প্রথমেই বলতে হয় এই গল্পের ক্ষুদে নায়ক কৃশ ছাবড়িয়ার(ছোটু) কথা। এই পিচ্চি ছেলেটা তার জায়গা থেকে সেরাটাই দিয়েছে। আর হেতাল গাডার(পারী) অভিনয়ও ছিলো দেখার মতোই। ছোট ভাইয়ের প্রতি বড় বোনের মমতা,ভালোবাসা সহজেই

আপনার মন কেড়ে নেবে। গল্পে এই দুজন ছাড়া বাকি সবার উপস্থিতিই খুব বেশি একটা ছিলনা। তবে গল্পে ঐ পাগল লোকটা ছাড়া সবাই সবার জায়গা থেকে নিখুত অভিনয়টাই করেছে।

.

.

পরিচালনা: সিনেমার পরিচালক ‘নাগেশ কুকুনুর’ গল্পটা ভালোই লিখেছেন।পাশাপাশি পরিচালনার কাজটাও খুবই গুছিয়ে আর বাসস্তবতার ধাচঁ রেখে অসাধারনভাবে ফুটিয়ে তুলেছেন।

.

.

≠আউলা ঝাউলা দৃশ্য ছাড়াও যে এতো লো বাজেটে এতো সুন্দর মুভি বানানো যায় এটার আরও একটা প্রমান দিলেন সিনেমার পরিচালক নাগেশ কুকুনুর। মুভিটি যারা এখনো দেখেননি তারা দেখে নিতে পারেন।ভাল লাগবে আশা করি। আর হ্যাঁ মুভিটি অবশ্যই পরিবারের সবাইকে নিয়েও দেখতে পারবেন। 🙂
লিখেছেন:  আসিক আহমেদ 

Be the first to comment on "​মুভি:Dhanak(রঙধনু)"

Leave a Reply