১ম ম্যাচেই নিজের জাত চেনালেন ইমরান তাহির

https://www.bdnow24.com/category/খেলাধুলা/

আইপিএলের দশম আসরের নিলামে কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজিই তাকে দলে টানেনি। গত আসরেও মাত্র ৪ ম্যাচ খেলেছিলেন দিল্লির হয়ে। সেবার ৮.৬২ রান রেটে মাত্র ৫ উইকেট পেয়েছিলেন ইমরান তাহির। তবে মিচেল মার্শের ইনজুরি তার জন্য হয়েছে আশীর্বাদ। পুনে সুপারজায়ান্ট তাকে দলে টেনে নেয় মার্শের জায়গায়। আর পুনের হয়ে প্রথম ম্যাচেই বাজিমাত করলেন তিনি।ম্যাচের গুরুত্বপূর্ণ সময়ে ইমরান তাহিরের হাতে বল তুলে দেন পুনে অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ। অধিনায়কের আস্থার প্রতিদানও দিয়েছেন এই প্রোটিয়া স্পিনার। প্রথম ওভারেই পার্থিব প্যাটেলকে বোল্ড করেন। নিজের বোলিং স্পেলের দ্বিতীয় ওভারে এক বল ব্যবধানে জস বাটলার এবং রোহিত শর্মার উইকেট তুলে নিয়ে দলকে দারুণভাবে ম্যাচে ফেরান। ৪ ওভারে ২৮ রান দিয়ে ঝুলিতে জমা করেছেন মূল্যবান তিনটি উইকেট। তাহির জাদুতে শেষ পর্যন্ত ৭ উইকেটের বড় ব্যবধানে জয় পেয়েছে পুনে।ম্যাচ শেষে ইমরান তাহিরের স্বস্তি, ‘আমি খুবই দুঃখ পেয়েছিলাম এবারের আসরে কোনো দলে জায়গা না পেয়ে। কিন্তু এখানে আমার কিছুই করার ছিল না। আমি খুবই আনন্দিত যে নিজেকে মেলে ধরতে পেরেছি। আমি আল্লাহর প্রতি কৃতজ্ঞতা আদায় করছি। আমার পরিবারকে ধন্যবাদ (বিশেষ করে আমার স্ত্রীকে) আমার পাশে থাকার জন্য। আমি খুবই ভেঙে পড়েছিলাম যখন জানতে পারি কোনো দলেই আমি নেই।’নিলামে দল না পেয়ে তাহিরের ভেতর জেদ কাজ করছিল। সুযোগ যখন পেলেন, নিজেকে প্রমাণ করার অপেক্ষায় ছিলেন। করলেনও। বলেন, ‘জীবন তো আর থেমে থাকার নয়। নিজেকে প্রমাণ করতেই আবার আইপিএলে এসেছি। আমাকে দলে না নেয়ায় কাউকে দায়ী করছি না। আমার কাজ হলো- দলের জন্য সাধ্যমতো পারফর্ম করা।’সব শেষে তাহির বলেন, ‘প্রত্যেকটা উইকেটই আমার জন্য স্পেশাল। ওরা(মুম্বাই) যেভাবে খেলেছিল ২০০ রান খুবই সম্ভব মনে হচ্ছিল। আমি সব সময় চ্যালেঞ্জ নিতে পছন্দ করি। যখন বল করি, তখন উইকেট তুলে নিতে চেষ্টা করি। বোলিংয়ে এসেই দ্রুত প্যাটেলের উইকেটটি তুলে নেয়া সত্যিই দারুণ ব্যাপার ছিল। আর পরের দুইটি উইকেট আমার জন্য স্পেশাল ছিল। কেননা রোহিত শর্মা এবং জস বাটলার দুজনেই স্পিনের বিপক্ষে বেশ শক্তিশালী।’​

Be the first to comment on "১ম ম্যাচেই নিজের জাত চেনালেন ইমরান তাহির"

Leave a Reply