হ্যাকিংয়ের ঝুঁকিতে ডটবিডির ৩৬ হাজার সাইট

পাকিস্তানি হ্যাকার গ্রুপের কবলে পড়ে মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে গুগলসহ বাংলাদেশের ডটকম ডট বিডির অসংখ্য ওয়েবসাইট অকেজো হয়ে পড়ে। পরে প্রায় আধা ঘণ্টা পর ১০টা ৪০ মিনিটের দিকে গুগল বাংলাদেশ চ্যাপ্টারসহ অন্যরা নিয়ন্ত্রণ ফিরে পায়।


পাকিস্তানি হ্যাকারদের আক্রমণের শিকার হয়েছিল ডটবিডি ডোমেইন। মঙ্গলবার এই আক্রমণে বড় পরিসরে গুগল ডটকম ডটবিডি আক্রান্ত হয়। ডটবিডির অনেক সাইটেই এদিন সকাল থেকে দীর্ঘসময় পর্যন্ত ঢোকা যায়নি।ইন্টারনেট যোগাযোগ বিশেষজ্ঞ ও বিডিনগ বোর্ড অব ট্রাস্টির চেয়ারম্যান সুমন আহমেদ সাবির জানান, এটাকে এক রকম সাইবার অ্যাটাক বলা যায়। ডটবিডি ঠিকানায় কেউ গেলে তার সন্ধান বিটিসিএলের গেটওয়ে দিয়ে যায়।

ডটবিডি সার্ভার কম্প্রোমাইজে এ সমস্যার কারণে গুগল ডটকম ডটবিডিসহ অনেক সাইটে ঢোকা যায়নি। তা রিডিরেক্ট হয়ে অন্য কোনো সাইটে চলে যাচ্ছে। এটি ডিএনএস ক্যাশ পয়জনিং আক্রমণ হিসেবে পরিচিত।

তিনি বলেন, আক্রমণের ধরন হিসেবে এটি সামান্য হলেও এটি বড় ঝুঁকির বার্তা দেয়। ডটবিডি ও চালু হতে যাওয়া ডটবাংলাসহ দেশের দুই টপ লেভেল ডোমেইনের ক্ষেত্রেই বিটিসিএলের উচিত হবে প্রশিক্ষিত ও দক্ষ জনশক্তি নিয়ে সর্বোচ্চ নিরাপত্তার বিষয়টি নিশ্চিত করা।

এদিন সকালে গুগল ডটকম ডটবিডি ব্রাউজ করতে গেলে কালো স্ক্রিন চলে আসে। সেখানে লেখা দেখা যায় ‘Google Bangladesh

STAMPED by TeaM Pak Cyber Attackers’ ওই স্ক্রিনে হ্যাকার ‘Faisal 1337’ হিসেবে নিজের পরিচয় দেন। তিনি লিখেছেন, Security is just an illusion।

দেশের আইটি কনসাল্টিং এবং তথ্যপ্রযুক্তি কোম্পানি ই-জেনারেশন লিমিটেডের সাইবার সিকিউরিটি স্পেশালিষ্ট তামজিদ রাহমান লিও মঙ্গলবার সকালে ফেসবুক স্ট্যাটাসে লিখেছেন, ‘বাংলাদেশের ডটবিডি প্রায় ৩০ হাজারেরও বেশি একটিভ ওয়েবসাইট পাকিস্তানি হ্যাকারের নিয়ন্ত্রণে চলে গেছে। এর মধ্যে গুগল বিডিও রয়েছে। এক্সকিউজ মি মিস্টার অথরিটি, নিড টু ইনক্রিজ ইওর সিকিউরিটি!!।’

সাইবার নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এই ঘটনায় বড় বিপদের কিছু না ঘটলেও, ঘটার সম্ভাবনা ছিল। কারণ ডটবিডিতে রাষ্ট্রীয়সহ দেশের অনেক গুরুত্বপূর্ণ সাইট রয়েছে। এতে রয়েছে দেশের জাতীয় ওয়েব পোর্টালসহ ৩৬ হাজার ৫০০ ওয়েবসাইট। শুধু জাতীয় ওয়েব পোর্টালের সঙ্গেই রয়েছে সরকারের সব মন্ত্রণালয়, বিভাগ ও দফতরের ২৫ হাজার ওয়েবসাইট।

জাতীয় পোর্টালে অনলাইন আবেদন, অনলাইন নিবন্ধন, অর্থ ও বাণিজ্য, শিক্ষাবিষয়ক, পার্সপোর্ট, ভিসা ও ইমিগ্রেশন, পোস্টাল ও কুরিয়ার, পরীক্ষার ফলাফল, টিকিট বুকিং ও ক্রয়, যানবাহন সেবা, রেডিও ও টিভির খবর, নিয়োগসংক্রান্ত, ইউটিলিটি বিল, কৃষি, মৎস্য ও প্রাণী, প্রশিক্ষণ, ভর্তির আবেদন, তথ্যভাণ্ডার, বিভিন্ন জিজ্ঞাসা, স্বাস্থ্যবিষয়ক, ইউডিসি, আয়কর, ফর্মস ও ট্রেজারি চালানের সেবা পেয়ে থাকেন নাগরিকরা। বিষয়টি নিয়ে বিটিসিএল কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, কিছু সমস্যা হয়েছিল এবং দ্রুত সময়ে তা সমাধান করা হয়েছে।

Be the first to comment on "হ্যাকিংয়ের ঝুঁকিতে ডটবিডির ৩৬ হাজার সাইট"

Leave a Reply