সপ্তাহে দু’তিন দিনের বেশি গোসল করা ঠিক নয়

আমরা শীতকালে প্রতিদিন সকালে কিংবা দুপুরে গোসল করে থাকি। সম্প্রতি সময়ের এক গবেষনায় দেখা যায় যে, শীতের সকালে প্রতিদিন গোসল করলে চর্ম-ত্বক কিংবা অন্যান্যা গুরুত্বপূর্ণ ও সংবেদনশীল অঙ্গ-প্রতাঙ্গে নানান সমস্যা দেখা দেয়। নিচে শীতে গোসল করলে যে সমস্যার সৃষ্টি হয় তা পর্যায়ক্রমে উল্লেখ করা হল:

ত্বক-বিশেষজ্ঞ ডা. রানেলা হির্চাচ বলেন, আমাদের সমাজের মানুষ প্রয়োজনের চেয়ে সামজিকতাটাকে বেশি গুরুত্ব দিয়ে থাকে। নিজে অপবিত্র না কিংবা তার শরীরে কোন ধরনের ধূলাবালি নেই অথচ প্রথাগত কারণে এই শীতের প্রচণ্ড ঠাণ্ডায়ও তাকে গোসল করতে হচ্ছে।

গবেষনায় দেখা যায়, মানুষের শরীরের চর্ম এমন এক অংশ যা পানি ব্যবহার না করেও এটি নিজেই নিজেকে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখতে পারে।আপনার শরীর যদি না ঘামে কিংবা যদি আপনি ব্যয়াম না করেন তাহলে আপনার গোসল করার প্রয়োজনটা কোথায়?

আপনি যদি বেশি গরম পানি দিয়ে গোসল করেন, তাহলে আপনার মারাত্বক ক্ষতির সম্ভাবনা থাকে। এতে আপনার চামড়া রুক্ষ কিংবা খসখসে হয়ে যেতে পারে।

যদি আপনার গোসল করাটা খুব বেশি প্রয়োজন হয়ে পড়ে তবে ব্যবহার করুন ড্রাই সাবান ও শ্যাম্পু এবং যতটা পানি কম ঢেলে পারা যায় তা করা উচিত। তবে এক্ষেত্রে গোসলের স্থায়িত্ব দশ থেকে পনের মিনিটের বেশি না হওয়াই ভাল।

দেহের চামড়ায় কিছু ব্যাকটেরিয়া থাকে যা শরীর সুস্থ রাখার জন্য বেশ উপকারী। প্রতিদিন গোসল করলে চর্মের এই বাড়তি সুবিধাগুলো পাওয়া যায় না।ত্বক বিশেষজ্ঞরা বলেন, সপ্তাহে দু’তিন দিনের বেশি গোসল করা ঠিক নয়।

Be the first to comment on "সপ্তাহে দু’তিন দিনের বেশি গোসল করা ঠিক নয়"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*