সকল অপরাধীকে আইনের আওতায় আনা হবে : প্রধান বিচারপতি 

​সাম্প্রতিক সময়ে চাঞ্চল্যকর হত্যাকান্ড ঘটেছিল নারায়গঞ্জে। অনেক বাঁধা বিপত্তিকে অতিক্রম করে অবশেষে নিষ্পত্তি হয়েছে সেই মামলার।  


দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দেওয়া হয়েছে জড়িত সকল ব্যক্তিদের।  শাস্তি প্রাপ্তদের মধ্যে র‍্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন ( র‍্যাব) এর কিছু কর্মকর্তাও রয়েছে।

প্রধান বিচারপতি হিসাবে সফল ভাবে ২ বছর দায়িত্ব পালন পূর্তিতে এক বানী প্রদান করেন প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা। তিনি বাংলাদেশের ২১ তম প্রধান বিচারপতি।

তিনি তার বাণীতে বলেন যে,  অপরাধী যত বড় হোক না কেন, সে দায়মুক্তি পাবে না। চাঞ্চল্যকর সাত খুনের মামলার প্রভাবশালী আসামি র‍্যাবের কতিপয় কর্মকর্তা রোমহর্ষক হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছেন, যা সমগ্র জাতিকে স্তম্ভিত করেছে। সুপ্রিম কোর্টের সময়োপযোগী হস্তক্ষেপের ফলে অপরাধীদের দ্রুত বিচারের মুখোমুখি করা হয়। স্বল্পতম সময়ের মধ্যে ওই মামলার বিচার নিষ্পত্তি করায় বিচার বিভাগের প্রতি জনগণের আস্থা আরও বেড়েছে।

রাষ্ট্রের প্রত্যেক বিভাগের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের জন্য স্বতন্ত্র চাকরির বিধান রয়েছে। বিচারকদের শৃঙ্খলার বিষয়ে নির্বাহী বিভাগের হস্তক্ষেপের সুযোগ থাকলে অধস্তন আদালতের বিচারকদের পক্ষে স্বাধীনভাবে বিচারকাজ পরিচালনার ক্ষেত্রে বিঘ্ন হওয়ার আশঙ্কা থাকে। সংগত কারণে বিচার বিভাগের জন্য পৃথক শৃঙ্খলা ও আপিল বিধিমালা প্রণয়ন আবশ্যক বলে এর খসড়া প্রণীত হয়েছে।

বিচারকদের স্বতন্ত্র আচরণ ও শৃঙ্খলা বিধিমালা দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হলে বিচার বিভাগ পৃথক্করণের উদ্দেশ্য বাস্তবায়িত হবে। 

দেশে যে অপরাধ করবে তাদেরকে দেশের প্রচলিত আইনের আওতায় এনে যথাযথ শাস্তি প্রদান কর হবে বলে জানিয়েছেন প্রধান বিচারপতি। 

Be the first to comment on "সকল অপরাধীকে আইনের আওতায় আনা হবে : প্রধান বিচারপতি "

Leave a Reply