যে সামান্য কারণে স্বামীর মাথা ফাটালেন স্ত্রী!

হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটলিস্ট ও কল রেকর্ড দেখতে চেয়ে স্ত্রীর হাতে প্রহৃত হলেন এক ব্যক্তি। শনিবার রাতে চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের খেরগড়ের ভিলাওয়ালি গ্রামে। স্ত্রীর মারে মাথা ফেটেছে ২১ বছরের নেত্রপাল সিংয়ের। তাঁকে স্থানীয় এস এন মেডিক্যাল কলেজে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

নেত্রপালের সঙ্গে ২০১৪-য় বিয়ে হয় নীতুর। কিন্তু সম্প্রতি তাঁদের মধ্যে মনোমালিন্যের জেরে দু’জনে আলাদা থাকছিলেন। এই পরিস্থিতিতে ১৯ বছরের নীতুর সঙ্গে অন্য এক ব্যক্তির প্রণয়ঘটিত সম্পর্ক তৈরি হয়েছে বলে দাবি নেত্রপালের পরিবারের।

নেত্রপাল জানিয়েছেন, “শনিবার রাতে আমার স্ত্রী এক পুরুষবন্ধুর সঙ্গে হোয়াটসঅ্যাপে কথা বলছিল। আমি চ্যাটবক্স দেখতে চাইলে দেখাতে অস্বীকার করে। আমি জোর করে ফোন কেড়ে নিলে আমার মাথায় কাস্তের আঘাত করে ও আমি জ্ঞান হারিয়ে ফেলি।” আক্রান্তের বাবা রাজীব সিংয়ের অভিযোগ, “বিয়ের আগে নীতু অন্য একটি সম্প্রদায়ের ছেলেকে ভালবাসত। আগে আমরা সেই সব জানতাম না। কিন্তু পরে ওকে অনেকবার বোঝানোর চেষ্টা করি। কিন্তু ও কিছুতেই রাজি হচ্ছিল না।”
অভিযোগ, স্বামীর উপর হামলা করার পর গ্রাম ছেড়ে পালাতে যান নীতু। কিন্তু নেত্রপালের পরিবারের সদস্যরা তাঁকে ও তাঁর পুরুষবন্ধুকে হাতেনাতে পাকড়াও করেন। কয়েক ঘা উত্তম-মধ্যম দেওয়াও হয় অভিযুক্তদের। নিয়ে যাওয়া হয় পুলিশের কাছে। সেখানে অভিযুক্ত নীতু দাবি করেন, তাঁর স্বামী নিজেই নিজের মাথায় কাস্তে দিয়ে আঘাত করেছেন। স্বামীর বিরুদ্ধে নীতুর পাল্টা অভিযোগ, তাঁকে ফাঁসানোর জন্যই নিজের মাথায় কাস্তের কোপ বসিয়ে দেন নেত্রপাল।

Be the first to comment on "যে সামান্য কারণে স্বামীর মাথা ফাটালেন স্ত্রী!"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*