যে কারণে প্রেমিককে খুন করলো তার প্রেমিকা!

খাটের মধ্যে বয়ফ্রেন্ডকে হাত-পা বেঁধে দেওয়া থেকে চোখে কাপড় বেঁধে দেওয়া সব প্রস্তুতিই সেরে ফেলেছেন সবথেকে প্রিয় তাঁর কাছের মানুষটি। শুধু যৌনতায় মেতে ওঠার অপেক্ষা। আর চরম মুহূর্তের শুয়ে প্রহর গুনছেন বয়ফ্রেন্ড। কিছুক্ষণের মধ্যেই শুরু হল শরীরজুড়ে জ্বালা। যদিও এই জ্বালা সে জ্বালা নয়। উত্তেজনা নয়, বয়ফ্রেন্ডের গলা ও বুকে চালিয়ে দিলেন করাত। সেক্স তো দূর, মৃত্যুর দিকে ঠেলে দিলেন বয়ফ্রেন্ডকে। ইতিমধ্যে জঘন্য এই অপরাধে ওই জার্মান মহিলাকে ১২ বছরের বেশি কারাদণ্ড দিল মিউনিখ আদালত। অভিযুক্ত মহিলার নাম গ্যাব্রিয়েল বলে জানা গিয়েছে। তবে কেন এই খুন তা তিনি এখনও পরিষ্কার করেননি।
মারাত্মক এই ঘটনাটি ঘটে ২০০৮ সালে। মৃত যুবক সাহিত্যের ছাত্র ছিল। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, জিজ্ঞাসাবাদে অভিযুক্ত গ্যাব্রিয়েল জানিয়েছেন, সেক্সের সময়ে প্রচন্ড দুর্ব্যবহার করতেন। আর সেই রাগ থেকেই খুন বলে মনে করা হচ্ছে। জানা গিয়েছে, ৩২ বছরের গ্যাব্রিয়েল বয়ফ্রেন্ডের সঙ্গে চিলেকোঠার একটি ঘর ভাড়া নিয়ে থাকতেন।

খুনের কয়েকদিন আগেই মৃত যুবক আলেকজান্ডারকে বাড়ি থেকে বার করে দেন তিনি। কিন্তু আবার ফিরে আসেন আলেকজান্ডার। সেক্সে লিপ্ত হওয়ার সময় তিনি চোখে কালো সুইমিং গগলস পরে নেন, গ্যাব্রিয়েলকে বলেন, তাঁকে খাটের সঙ্গে বেঁধে ফেলতে। গ্যাব্রিয়েল সুযোগ বুঝে গোল স্বয়ংক্রিয় একটি করাত বার করে আলেকজান্ডারের গলায় ও বুকে চালিয়ে দেন।

Be the first to comment on "যে কারণে প্রেমিককে খুন করলো তার প্রেমিকা!"

Leave a Reply