প্রেমিকের অভিমান ভাঙাতে পুলিশের সাহায্য 

গত সপ্তাহে ভারতের মহারাষ্ট্রের লাতুরের বাসিন্দা বছর ২৪-এর তরুণীর সঙ্গে তার প্রেমিকের ঝগড়া হয়। এরপর থেকেই ফোন ধরা বন্ধ করে দেন তার বয়ফ্রেন্ড। তাকে একাধিকবার ফোন করা হলেও তিনি ফোন তোলেননি। অগত্যা, প্রেমিকের দেখা পেতে পুলিশের দ্বারস্থ হলেন তরুণী। তবে, ২৪ বছরের ওই তরুণী প্রেমিকের খোঁজ পেতে যা করলেন, তাতে হতবাক পুলিস কর্তারাও। 

ঝগড়ার পর ফোন বন্ধ থাকার কারণে হাজার কল করলেও কোন খোঁজ না পেয়ে পুলিশের দ্বারস্থ হয় প্রেমিকা। যুবক, তার ভাই ও কয়েকজন বন্ধুর বিরুদ্ধে সম্ভ্রমহানীর অভিযোগ করেন প্রেমিকা।

প্রেমিকার অভিযোগের ভিত্তিতে যুবককে থানায় নিসে আসার পরই জানা যায়, গত ২৭ নভেম্বর ওই তরুণীকে  সেই যুবক বিয়ে করেছিলেন। এরপর কাজের খোঁজে পুনেতে একাই চলে আসেন যুবক। কিন্তু তরুণী প্রেমিকের ঠিকানা ভালোভাবে জানতেন না। 

প্রেমিককে খুঁজে পেতেই এই ফাঁদ পেতেছিল বলে পুলিশের কাছে স্বীকারও করেন প্রেমিকা। যুবক জানান, তিনি এখনও ওই তরুণীকেই ভালোবাসেন ও তার সঙ্গে বাকিটা জীবন থাকতে চান। কিন্তু তরুণী তাকে দিনে এত বেশিবার ফোন, মেসেজ, অনলাইনে টেস্কট করতেন, তাতে বিরক্ত হয়ে গিয়েছিলেন তিনি।সেই অভিমান থেকেই তিনি এই কাজ করেছেন।

প্রশ্ন পর্বের শেষে সব জেনে পুলিশও হতবাক। তবে মানবিকতার খাতিরে ওই যুবক ও তরুণীর নাম প্রকাশ করেনি পুলিশ। তাদের বিরুদ্ধে কোনও আইনি পদক্ষেপ করেনি পুলিশ।

Be the first to comment on "প্রেমিকের অভিমান ভাঙাতে পুলিশের সাহায্য "

Leave a comment

Your email address will not be published.


*