পুরুষের তুলনায় নারীর ঠাণ্ডা বেশি লাগে! কিন্তু কেন?

পুরুষের তুলনায় নারীর ঠাণ্ডা বেশি লাগে। কিন্তু কেন এ তাপমাত্রার পার্থক্য হয়, তা নিয়ে বিশেষজ্ঞরা কিছু বিষয় জানিয়েছেন। এ লেখায় তুলে ধরা হলো সেই কারণগুলো। এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে ফক্স নিউজ।
১. নারীর দেহের অভ্যন্তরের তাপমাত্রা বেশি
নারীর দেহের অভ্যন্তরের তাপমাত্রা পুরুষের তুলনায় বেশি থাকে। আর এ কারণে নারীর দেহের তাপমাত্রা সংবেদনশীলতা বেশি। ফলে তাপমাত্রা যখন বেশি থাকে তখন সে তাপমাত্রার সঙ্গে আশপাশের তাপমাত্রার পার্থক্যও গুরুত্বপূর্ণ হয়ে ওঠে।
২. জন্মনিয়ন্ত্রণ সামগ্রী ব্যবহারে
হরমোন ব্যবহার করে যারা জন্মনিয়ন্ত্রণ করে থাকেন তাদের ক্ষেত্রে দেহের তাপমাত্রা স্বাভাবিকের তুলনায় বেশি দেখা যায়। আর এর মূল কারণ হলো দেহের ওপর হরমোনের প্রভাব।
৩. হাত-পা ঠাণ্ডা থাকে
নারীর দেহের অভ্যন্তরের তাপমাত্রা বেশি থাকলেও হাত-পা প্রায়ই পুরুষের তুলনায় বেশি ঠাণ্ডা থাকে। এটি স্বাভাবিক বিষয়। আর এ কারণে তাপমাত্রা বেশি কমে গেলে নারীর ওপর সবার আগে প্রভাব পড়ে।
৪. নারীর বিপাক ক্রিয়া ধীরে হয়
পুরুষের তুলনায় নারীর বিপাক ক্রিয়ার গতি কম। গবেষকরা বলছেন, নারীর বিপাক ক্রিয়ার তুলনায় পুরুষের বিপাক ক্রিয়ার গতি ২৩ শতাংশ বেশি। আর এ কারণে পুরুষের তুলনায় নারীর শরীরের কিছু অংশ ঠাণ্ডা থাকে।

Be the first to comment on "পুরুষের তুলনায় নারীর ঠাণ্ডা বেশি লাগে! কিন্তু কেন?"

Leave a Reply