পরিচিত কটন বাডের অজানা ১০ টি ব্যবহার সম্পর্কে জেনে নিন

কটন বাড দিয় আমরা কী করি? কানের ময়লা পরিষ্কার করা অথবা খুব সুক্ষ্ণ কোন কিছু পরিষ্কার করার কাজে আমরা কটন বাড ব্যবহার করে থাকে। এছাড়া আর কোন কিছুতে যে কটন বাড ব্যবহার করা যায় তা আমরা কখনও ভেবে দেখি না। এই সাধারণ কটন বাডের যে কিছু অসাধারণ ব্যবহার আছে তা onegoodthingbyjillee.,planetforward এবং families থেকে জানা যায়। আসুন জেনে নিই সাধারণ কটন বাডের সেই সকল ব্যবহারগুলো।

১। চোখে মেকআপ করার সময় আইশ্যাড, মাশকারা অথবা আই লাইনার ছড়িয়ে যায়। এই ছড়িয়ে যাওয়া মেকআপ ঠিক করার জন্য কটন বাড ব্যবহার করা হয়। এমনকি আই ক্রিম লাগানোর জন্য এটি ব্যবহার করা যায়। এতে ক্রিম চোখের ভিতরে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে না।

২। অনেক সময় বাচ্চাদের জামার বা আমাদের চেইন আটকে যায়। তখন কটন বাডে তেল লাগিয়ে চেইনের ওপর ঘষুন। কিছুক্ষণ পর চেইন খুলে যাবে।

৩। নখে নেইলপলিশ লাগানোর সময় নখের বাইরে চলে যায়। আঙ্গুলের চারপাশে ছড়িয়ে লেইলপলিশ লেগে যায়। এই সমস্যাও দূর করে থাকে কটন বাড।

৪। কম্পিউটারের কিবোর্ড এর ভেতরে ধুলো দিয়ে ভরে থাকে। এই আনাচে কানাচের ধুলো বালি পরিষ্কার করতে কটন বাডের ভূমিকা রয়েছে।

৫। কটন বাডে অলিভ অয়েল লাগিয়ে কানের বাইরের অংশের ময়লা পরিষ্কার করতে পারেন। এটি স্বাস্থ্যকর এবং জীবাণুমুক্ত।

৬। একটি কটন বাডে আপনার প্রিয় কোন পারফিউমে ভিজিয়ে নিন। এবার এটি আপনার হ্যান্ড ব্যাগে বা আপনার সাথে রাখুন। এটি আপনাকে সুগন্ধ রাখবে অনেকক্ষণ।

৭। অনেকেই আইল্যাশ বা নকল চোখের পাপড়ি ব্যবহার করেন থাকেন। আইল্যাশ লাগানোর গ্লু-টি কটন বাডে লাগিয়ে নিন তারপর এটি আইল্যাশে লাগান। এতে হাতে গ্লু লাগার কোন সম্ভাবনা থাকে না।

৮। চুল শুকানোর কাজে আমরা হেয়ার ড্রায়ার ব্যবহার করে থাকি। অনেক সময় এই হেয়ার ড্রায়ারের ফ্যানে ময়লা জমে যায়। কটন বাড দিয়ে খুব ভালভাবে পরিষ্কার করা সম্ভব।

৯। বাচ্চারা ড্রয়িং করার সময় অনেক ছোট ছোট বস্তু ছবি এঁকে থাকে যেখানে রং করা কিছুটা কঠিন হয়ে পড়ে। কটন বাডে রং লাগিয়ে ব্রাশের মত ব্যবহার করতে পারবেন।

১০। আপনার শখের জুয়েলারি পরিষ্কার করতে কটন বাড ব্যবহার করতে পারেন। জুয়েলারির সুক্ষ্ণ থেকে সুক্ষ্ণ ডিজাইনও কটন বাড দিয়ে পরিষ্কার করা সম্ভব।

Be the first to comment on "পরিচিত কটন বাডের অজানা ১০ টি ব্যবহার সম্পর্কে জেনে নিন"

Leave a Reply