নির্বাচন থেকে সরে দাড়ালেন সাচ্চু!


​বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পীদের সংগঠন বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি। আগামী ৫ মে অনুষ্ঠিত হচ্ছে এ সংগঠনটির দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন। এরই মধ্যে মিশা সওদাগর-জায়েদ খান, ওমর সানি-অমিত হাসান, ড্যানি সিডাক-ইলিয়াস কোবরার তিনটি প্যানেল থেকে প্রার্থীরা মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। নির্বাচনের প্রচারণায় ব্যস্ত তারা।
ওমর সানি-অমিত হাসান প্যানেল থেকে সহ-সভাপতি পদে মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছিলেন শহীদুল আলম সাচ্চু ও নাদির খান। কিন্তু হঠাৎ করেই নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন শহীদুল আলম সাচ্চু। তিনি তার মনোনয়ন প্রত্যাহার করে মালয়েশিয়া চলে গেছেন বলে জানা যায়।
এ বিষয়ে একই প্যানেলের সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী অমিত হাসান  বলেন, ‘সাচ্চু ভাইকে ব্যবসায়িক কাজে হঠাৎ করেই দেশের বাহিরে যেতে হয়েছে। তাই তিনি মনোনয়ন প্রত্যাহার করেছেন। তিনি ২ মে দেশে এসে আবার পাঁচ তারিখ দেশের বাহিরে চলে যেতে পারেন। তাই তিনি এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।’
শহীদুল আলম সাচ্চুর নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোতে ওমর সানি-অমিত হাসান প্যানেল থেকে একজন প্রার্থী কমে গিয়েছে। এ প্যানেল থেকে এখন একজন সহ-সভাপতি পদে লড়ছেন।
এতে ওমর সানি-অমিত হাসান প্যানেলের কোনো ক্ষতি হবে কি না জানতে চাইলে অমিত হাসান বলেন, ‘এতে আমাদের প্যনেলের কোনো ক্ষতি হবে না। আর সবাইতো আমরা নিজেরাই। ক্ষতির কিছু নেই।’
তিনটি প্যানেল ও স্বতন্ত্র প্রার্থীসহ এবারে মোট ৫৮ জন প্রার্থী নিবাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। গত ১৬ এপ্রিল তারা নির্বাচন কমিশনে মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন। এবারের নির্বাচনে মোট ভোটার সংখ্যা ৬২৩ জন। শিল্পী সমিতির এ নির্বাচনে নির্বাচন কমিশনের দায়িত্ব পালন করছেন মনতাজুর রহমান আকবর।
২০১৫ সালের ৩০ জানুয়ারি শিল্পী সমিতির সর্বশেষ দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতি নির্বাচিত হন শাকিব খান এবং সাধারণ সম্পাদক অমিত হাসান। দুই বছর আগে ৭ ফেব্রুয়ারি শপথ গ্রহণের মাধ্যমে দায়িত্ব বুঝে নিয়েছিলেন এই কমিটি। সমিতিতে প্রতি দুই বছর পরপর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।
২০১৫-১৬ কমিটির মেয়াদ গত ৭ ফেব্রুয়ারি শেষ হয়েছে। দুই মাসের মাথায় এসে গত ৮ এপ্রিল আসন্ন নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়।

Be the first to comment on "নির্বাচন থেকে সরে দাড়ালেন সাচ্চু!"

Leave a Reply