দুধ বিক্রেতা থেকে বিশ্বকাপ দলে!

দুধ বিক্রেতা থেকে বিশ্বকাপ ফুটবল দলে এমনটা বোধহয় খুব কমই শুনে থাকবে মানুষ। আর এমন ঘটনাই ঘটলো ইংলিশ গোলরক্ষক নাইক পোপের জীবনে। এর আগে ঠিক দশ বছর আগে দুধ বিক্রি করে জীবিকা নির্বাহ করতেন তিনি।

এদিকে ইংল্যান্ডের কোচ গ্যারাথ সাউথগেট বিশ্বকাপ স্কোয়াডে তার নাম ঘোষণা করতেই উল্লাসে মেতে ওঠেন পোপ। কারণ ইংল্যান্ড জাতীয় দলের ফুটবলার হিসেবে বিশ্বকাপ খেলতে রাশিয়ায় যাচ্ছেন তিনি। তাছাড়া এই মৌসুমে বার্নলির হয়ে অসাধারণ নৈপুণ্য দেখিয়েছেন পোপ।

এর আগে জীবিকার জন্য ফুটবল থেকে সরে এসেছিলেন পোপ। গত ২০০৮ সালে ইংল্যান্ডের ওয়েস্ট সাফক কলেজে বিজনেস মার্কেটিংয়ে কোর্স করেন এবং তারপর হঠাৎ করেই গাড়ি দিয়ে দুধ বিক্রি করার (ইলিক্ট্রিক মিল্ক ফ্লট) ব্যবসায় নেমে পড়েন পোপ। এখানে ঘন্টা হিসেবে কাজ করতেন তিনি। এছাড়া মাঝে মাঝে খুচরা বিক্রিও করতেন পোপ।

এছাড়া কলেজের হয়ে একদিন খেলার পরেই সবার নজর কাড়েন পোপ। তারপির পরবর্তীতে ঐ কলেজের মাধ্যমে লিগ ওয়ানের ক্লাব বারি টাউনের হয়ে খেলার সুযোগ হয় তার।

এদিকে ২০১৭-১৮ মৌসুমে বার্নলির হয়ে লিগে ৩৫টি ম্যাচ খেলে ১১টি ম্যাচেই ক্লিন শিট রাখতে সক্ষম হয়েছেন পোপ। গোল খেয়েছেন মাত্র ৩৫টি। আর এমন পারফরম্যান্সেই জো হার্টকে টপকে ইংল্যান্ডের বিশ্বকাপ দলে জায়গা করে নেন এক সময়ের দুধ বিক্রেতা নাইক পোপ।

Be the first to comment on "দুধ বিক্রেতা থেকে বিশ্বকাপ দলে!"

Leave a Reply