দারুচিনির এতো গুণ !

সুগন্ধী মশলা হিসেবে দারুচিনি সুপরিচিত। রান্নার স্বাদ আর গন্ধ বাড়াতে এর জুড়ি নেই। এটি আমাদের শরীরের জন্য বেশ উপকারী। এর বাইরেও দারুচিনির রয়েছে আরেকটি পরিচয়। আর তা হলো, দারুচিনি দিয়ে খুব সহজেই আপনি করতে পারেন আপনার রূপচর্চার কাজটি। কিভাবে? চলুন জেনে নেয়া যাক-

ত্বকের স্ক্রাব হিসেবে দারুচিনি বেশ উপকারী। একটি পাত্রে ইপসোম সল্ট এবং দারুচিনির গুঁড়ো একসাথে মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণটি ত্বকে এটি চক্রাকারে ম্যাসাজ করে লাগান। এই স্ক্রাবটি নিয়মিত ব্যবহার করুন। এটি ত্বক থেকে মৃত চামড়া দূর করে দেয়। ফেসপ্যাকে দারুচিনির গুঁড়ো ব্যবহার করতে পারেন, এটি ত্বক নরম কোমল করতে সাহায্য করে।

প্রাকৃতিক ভাবে চুল রাঙাতে দারুচিনি ব্যবহার করতে পারেন। কন্ডিশনারের সাথে কিছু পরিমাণ দারুচিনির গুঁড়ো মিশিয়ে নিন। এমনকি শ্যাম্পুর সাথেও দারুচিনির গুঁড়ো মেশান। এটি ব্যবহার করুন। তারপর পানি দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন।

প্রাকৃতিক লিপ বাম তৈরি করতে পারেন দারুচিনি দিয়ে। কিছু পরিমাণ নারকেল তেল এবং দারুচিনির গুঁড়ো একসাথে মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণটি লিপ বামের মতো কাজ করবে। এটি ঠোঁট ফাটা রোধ করে রুক্ষতা দূর করবে।

কিছু পরিমাণ দারুচিনির গুঁড়ো এবং মধু একসাথে মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। এটি ব্রণের উপর ব্যবহার করুন। কিছুক্ষণ পর ঠান্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এটি দিনে দুইবার ব্যবহার করতে পারেন।

দারুচিনি দিয়ে তৈরি করে নিতে পারেন ফেসপাউডার। কিছু পরিমাণ কর্ণ স্টার্চ এবং এর সাথে কিছু পরিমাণ দারুচিনির গুঁড়ো মিশিয়ে নিন। ব্যস তৈরি হয়ে গেলো ফেসপাউডার। এটি ত্বকে ব্যবহার করুন।

ফাউন্ডেশনে কিছুটা গ্লো নিয়ে আসতে চাইলে দারুচিনি ব্যবহার করতে পারেন। ফাউন্ডেশন বা লুস পাউডারে কিছু পরিমাণ দারুচিনির গুঁড়ো মিশিয়ে নিন। এটি ত্বকে ব্যবহার করুন। এটি ত্বকে একটি আলাদা গ্লো এনে দেবে।

Be the first to comment on "দারুচিনির এতো গুণ !"

Leave a Reply