ডলার আমদানিতে কর ও ভ্যাট প্রত্যাহার

ডলার আমদানিতে বিদ্যমান কর ও ভ্যাট প্রত্যাহারের বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংককে অনুমতি দিয়েছে সরকার। ব্যাংকিং খাতে ডলার সংকট কাটাতে সরকার কেন্দ্রীয় ব্যাংকের এক প্রস্তাবের প্রেক্ষিতে এই সবুজ সংকেত দিয়েছে বলে জানিয়েছেন ডেপুটি গভর্নর এসকে সুর চৌধুরী।

জানা গেছে, গত সপ্তাহে বাংলাদেশ ব্যাংক এ সংক্রান্ত একটি চিঠি সিনিয়র অর্থসচিব বরাবর পাঠায়।

চিঠিতে বলা হয়, দেশের ব্যাংকিং খাত এখন নগদ ডলার সংকটে ভুগছে। দেশের অর্থনীতির স্বার্থে খুব শিগগিরই ব্যাংকগুলোতে ডলার দরকার। এই অবস্থা কাটাতে ডলার আমদানিতে বিদ্যমান কর ও ভ্যাট যত শিগগির সম্ভব প্রত্যাহার করা দরকার।

মঙ্গলবার গভর্নর ফজলে কবিরের উপস্থিতিতে ব্যাংকগুলোর প্রধান নির্বাহীদের সাথে এক বৈঠকের পরে ডেপুটি গভর্নর সাংবাদিকদের এই কথা জানান।

তিনি জানান, সম্প্রতি কিছু ব্যাংক ডলার আমদানির উদ্যোগ নেয়। তবে এক্ষেত্রে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) ৩৭ শতাংশের ওপরে কর ও ভ্যাট আরোপ করায় তা থেকে পিছিয়ে আসে ব্যাংকগুলো। তবে সম্প্রতি সরকারে উচ্চ পর্যায় থেকে এই কর ভ্যাট প্রত্যাহারের বিষয়ে আশ্বস্ত করা হয়েছে বলে জানান এসকে সুর।

জানা গেছে, গ্রাহকের চাহিদা মেটাতে বাংলাদেশ ব্যাংক প্রতি কার্য দিবসে গড়ে ১ কোটি ৬০ লাখ ডলার সরবরাহ করে থাকে। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে কেন্দ্রীয় ব্যাংক ডলারের সরবরাহ ১ কোটিতে নামিয়ে এনেছে। আর তারই প্রভাব পরেছে ব্যাংকিং খাতে।

তিনি মনে করেন, বিদেশ থেকে ডলার পাঠানো বা দেশে থেকে ডলার আমদানিতে আরোপিত ভ্যাট ও কর প্রত্যাহার করা হলে ব্যাংক ও মানি এক্সচেঞ্জের মধ্যকার ডলারের দামের পার্থক্য কমে আসবে। ফলে প্রবাসীরা ব্যাংকের মাধ্যমেই দেশে টাকা পাঠাতে উৎসাহিত হবে।

Be the first to comment on "ডলার আমদানিতে কর ও ভ্যাট প্রত্যাহার"

Leave a Reply