ঠোঁটের সৌন্দর্য ধরে রাখতে কিছু বিষয় জেনে রাখুন

মুখের সৌন্দর্যের বড় একটা অংশ ঠোঁট। আর ঠোঁট যদি কালো হয় তাহলে দেখতে খুব খারাপ লাগে। তাই ঠোঁটের সৌন্দর্য ধরে রাখতে কিছু বিষয় অনুসরণ করতে হয়। কালো ঠোঁট লাল করতে রূপবিশেষজ্ঞরাও কিছু পরামর্শ দিয়েছেন। সেসব নিয়ে এবারের আয়োজন-
ঠোঁট খুব সংবেদশীল। সবকিছু অনায়াসে ঠোঁটে ব্যবহার করা যায় না। এমনকি চট করে হাতের কাছের যে কোনো কসমেটিকস ঠোঁটে লাগানো ঠিক না। কালো ঠোঁট লাল করতে রেড বিউটি স্যালুন-এর কর্ণধার আফরোজা পারভীন বলেন, ঠোঁটের ত্বক খুবই নরম ও সেনসেটিভ। সহজে রুক্ষ হয়ে যায় আর দেখতেও কালচে লাগে। আর্দ্রতার কারণে যাদের ঠোঁট কালো হয়, তারা রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে গ্লিসারিনের সঙ্গে আমন্ড তেল মিশিয়ে ঠোঁটে লাগাতে হবে। তাছাড়া সবার জন্য উপকারী টিপস হলো গোলাপের পাপড়ি পিষে এর মধ্যে গ্লিসারিন মিশিয়ে নাও। তা প্রতিদিন ঠোঁটে লাগাও। আপনার ঠোঁটের চমক এমনিতেই বেড়ে যাবে। ঠোঁট সব সময় লাল রাখতে গোলাপের পাপড়ির রসের মধ্যে তুলসীপাতার রস মিশিয়ে লাগাতে পারো। এতে কালো দাগ দূর হবে। কাঁচা দুধে তুলা ভিজিয়ে ঠোঁটে ঘষো। কালো দাগ তো উঠবেই, সঙ্গে ঠোঁটের গোলাপি ভাব আসবে। অনেকের জন্মগতভাবেই ঠোঁট কালচে হতে পারে। আবার অনেকের কোনো রোগের কারণে ঠোঁট কালো হয়ে যেতে পারে। আবার অতিরিক্ত পরিমাণে চা, কফি পান, ধূমপান, গরম খাবার খাওয়া ইত্যাদি কারণে ঠোঁট কালো হয়ে থাকে। তাই প্রতিদিন ঘুমানোর আগে ঠোঁটে পেট্রোলিয়াম জেলি ব্যবহার করতে হবে। এ ছাড়া সকালে দাঁত ব্রাশ করার সময় ব্রাশ দিয়ে ঠোঁট ব্রাশ করতে হবে। এতে মরা কোষগুলো পরিষ্কার হয়ে যাবে। ঘোল ও আলুর রস সমপরিমাণ মিশিয়ে দিনে দুবার ঠোঁটে লাগাও। কারণ, দুধের ল্যাকটিক অ্যাসিড ঠোঁটের কালচেভাব দূর করবে। আর লিপস্টিক বেশিমাত্রায় ব্যবহার করা ঠিক না। এতে ঠোঁটের রং আস্তে আস্তে কালো হয়ে যায়। তবে লিপস্টিকের বদলে লিপ আইস ব্যবহার করতে পারো।

 

মধু ঠোঁটের দাগ দূর করতে খুব কার্যকরী ভূমিকা রাখে। বলছিলেন হারমনি স্পার কর্ণধার রাহিমা সুলতানা রীতা। তিনি এ বিষয়ে আরও বলেন, লেবুর রসের সঙ্গে মধু মিশিয়ে প্রতিদিন রাতে ঘুমানোর আগে লাগাতে হবে। সারারাত এভাবে রেখে সকালে হালকা করে ঘষে ধুয়ে ফেলতে হবে। ডালিম ফুলের তেল ঠোঁটের জন্য খুব ভালো কাজ করে, এটা লাগালে ঠোঁটের স্বাভাবিক রং ফিরে আসে। ধনেপাতার রসও ঠোঁটের কালোভাব দূর করে দেয়। যাদের ঠোঁট খুব অল্পতেই রুক্ষ হয়ে যায় তারা দিনে পাঁচ থেকে ছয়বার ঠোঁটে ভেসলিন লাগাতে পারো। এতে ঠোঁটের কালোভাব দূর হয়ে উজ্জ্বল দেখাবে। আর প্রতিদিন গ্লিসারিন, অলিভ অয়েল, মধু ও গোলাপজল একসঙ্গে মিশিয়ে লাগালে ঠোঁটের উজ্জ্বলতা ফিরে আসবে। রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে নারকেল তেলের সঙ্গে বাদাম তেল মিশিয়ে ঠোঁটে লাগাও। সপ্তাহে দুদিন এই প্যাকটি ব্যবহার করো। কালো দাগ দূর হবে।

 

টিপস :

– লেবুর রসের সঙ্গে খানিকটা গ্লিসারিন মিশিয়ে ঠোঁটে লাগাও। কয়েক দিনেই পাবে চমৎকার ফলাফল।

– কমলালেবুর বিচি ঠোঁটের জন্য বেশ কার্যকরী। এটা দিয়ে ঠোঁট পরিষ্কার করলে ভালো ফল পাওয়া যায়।

– প্রতিদিন টমেটো পেস্ট করে ঠোঁটে লাগাও। ঠোঁট হবে উজ্জ্বল।

– শসার রসও ঠোঁটের কালো হওয়াকে প্রতিরোধ করে। ফলাফল পেতে প্রতিদিন অন্তত ৫ মিনিট শসার রস ঠোঁটে ঘষো।

 

– রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে লিপস্টিক তুলে ফেলতে ভুলবে না।

– জিহ্বা দিয়ে অবিরত ঠোঁট ভেজানো যাবে না। এতে সাময়িক আরাম মিললেও আসলে ঠোঁটের সৌন্দর্যহানি হয়।

– চা এবং কফির পরিবর্তে পানি বেশি খেতে হবে। চা কফিতে ঠোঁট কালো হয়ে যায়।

– কয়েক ফোঁটা মধু ও কাঁচা দুধ আর মুলতানি মাটির সঙ্গে মিশিয়ে ঠোঁটে লাগাও, দেখবে ঠোঁটের কালোভাব দূর হবে।

Be the first to comment on "ঠোঁটের সৌন্দর্য ধরে রাখতে কিছু বিষয় জেনে রাখুন"

Leave a Reply