গাড়ীর ভেতরেও ঘনিষ্ঠ হয়েছিলেন শাহীদ-মীরা জুটি!

​২০১৫ সালে বিয়ে হয় শহিদ কাপুর ও মীরা রাজপুতের। তার আগে বহুবার বহু মেয়ের সঙ্গে জড়িয়েছে শহিদের নাম।

অবশেষে তার চেয়ে বয়সে ১৩ বছরের ছোট মীরাকে বিয়ে করেন শহিদ। ২০১৬ সালে এক কন্যাসন্তানের বাবা-মা হন দুজন। শহিদের বিয়ে এবং মেয়ে মিশার জন্ম নিয়েও মিডিয়ায় আলোচনা হয়েছিল যথেষ্ট। ‌এবার আলোচনার কেন্দ্রে উঠে এলো দুজনের গোপন যৌন জীবনের কথা।

অবশ্য ‘গোপন’ কথা প্রকাশ্যে এনে দিয়েছেন মীরা নিজেই। সম্প্রতি মীরা আর শহিদ এসেছিলেন করণ জোহরের টক শো ‘কফি উইথ করণ’ এ। সেখানেই কথায় কথায় করণ দুজনের যৌন জীবনের কথা জেনে নেন। মীরা স্বামী শহিদ আর সঞ্চালক করণকে সাক্ষী রেখে যা বলেছেন, তা রীতিমতো বিস্ফোরক।

১. করণ মীরার কাছে জানতে চান, বৈবাহিক জীবনে কোন জিনিসটি তার সবচেয়ে বেশি বিরক্তিকর মনে হয়েছে- নাক গলানো শ্বশুর-শাশুড়ি, প্রতারণা, খারাপ সেক্স নাকি একঘেয়েমি? উত্তরে মীরা বলেন, তার শ্বশুর-শাশুড়ি তাদের ব্যাপারে একেবারেই নাক গলান না, একঘেয়েমি তাদের জীবনে এখনও আসেনি, খারাপ সেক্স তারা কখনও করেনই না। একমাত্র প্রেমে প্রতারিত হওয়ার চিন্তাই তাকে সবচেয়ে বেশি বিরক্ত করে।

২. সঞ্চালক করণ সরাসরি জানতে চান, তারা কখনও গাড়ির ভেতরে ঘনিষ্ঠ হয়েছেন কি না। উত্তরে মীরা বলেন, ‘হ্যাঁ, হয়েছি’।

৩. মীরা করণকে স্পষ্টই বলে দেন, অন্য মানুষজন, এমনকি পরিবারের লোকজনদের উপস্থিতিতেও তারা দুজন ঘনিষ্ঠ হতে দ্বিধা করেন না। এমনকি শ্বশুরবাড়ির লোকজনদের সামনেও তারা লুকিয়ে চুমু খেয়ে থাকেন।

৪. র্যাপিড ফায়ার রাউন্ডে মীরা স্বীকার করেন, শহিদ কাপুর একজন ন্যাচারাল কিসার। চুমু খাওয়ার জন্য শহিদকে আলাদা করে কোনোরকম কসরত করতেই হয় না। এই কথা শুনে দেখা যায়, শহিদও সায় দিচ্ছেন।

স্বামীর সঙ্গে ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে মীরার এমন স্বীকারোক্তি শুনে অনেকেরই চোখ কপালে উঠেছে। ওয়াকিবহাল মহলের ধারণা, এই নিয়ে কিছু দিনের মধ্যেই আলোচনার ঝড় উঠবে বলিউডে। 

Be the first to comment on "গাড়ীর ভেতরেও ঘনিষ্ঠ হয়েছিলেন শাহীদ-মীরা জুটি!"

Leave a Reply