ঐশ্বরিয়া-সালমানের ব্রেকআপের পেছনে দায়ী কে জানেন?

গত শনিবার প্রয়াত হন বচ্চন পরিবারের বধূ ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চনের বাবা কৃষ্ণরাজ রাই। তাঁর মৃত্যুতে শোকাহত রাই ও বচ্চন দুই পরিবার। কৃষ্ণরাজ রাইকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে মঙ্গলবারই আয়োজিত হয় প্রার্থনা অনুষ্ঠানের। ‌যার মূল উদ্যোক্ত ছিলেন ঐশ্বরিয়া নিজে। এরই মাঝে বুধবার সকালে ইন্টারনেটে নতুন করে সামনে এসেছে সালমান ও ঐশ্বরিয়ার ব্রেকআপের ঘটনা।

শোনা ‌যাচ্ছে কৃষ্ণরাজ রাই সালমান খানকে একদমই পছন্দ করতেন না। তিনি নাকি কোনওদিনই চাননি মেয়ে ঐশ্বরিয়া সালমানের সঙ্গে ঘর বাঁধুন। কৃষ্ণরাজই নাকি মেয়ে ঐশ্বরিয়াকে সলমানের সঙ্গে সমস্ত সম্পর্ক ছিন্ন করতে বলেন। এবং সেটা নাকি সালমানের বদমেজাজি স্বভাবের জন্যই।

ঐশ্বরিয়ার সঙ্গে সালমানের সম্পর্ক থাকাকালীন বহুবার সালমান তাঁর গায়ে হাত তোলেন বলেও শোনা ‌যায়। ২০০১ সালে নভেম্বর মাসের ১ তারিখ ঐশ্বরিয়া-সালমানের সম্পর্ক ছিন্ন হয়ে ‌যায়। ওইদিন নাকি রাই সুন্দরীর সঙ্গে ঝগড়ার পর সালমান ঐশ্বরিয়ার বাড়ির সামনে রাত ৩টা থেকে সকাল পর্যন্ত দাঁড়িয়ে ছিলেন। ঐশ্বরিয়ার প্রতিবেশীরাই নাকি পুলিশে খবর দেন। ঘটনার সত্যতা কথা নিজেই স্বীকার করে নেন সালমান। তবে ঘটনাটি মিডিয়া একটু বেশি করেই দেখিয়েছিল বলে তাঁর অভিযোগ। তাঁর কথায় ‌যেকোনও প্রেমের সম্পর্কে ঝগড়া থাকবেই।

এই ঘটনার পরই নাকি অ্যাশ-এর বাবা কৃষ্ণরাজ পুলিশের কাছে সালমানের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন।

‌যদিও সালমান ঐশ্বরিয়ার বাবা-মার সম্পর্কে কখনোই খারাপ কোনও মন্তব্য করেননি উল্টে প্রশংসাই করেছেন। সল্লুও এও স্বীকার করে নিয়েছেন ‌যে সেসময় দোষটা নাকি তাঁরই ছিল রাই পরিবারের নয়।

Be the first to comment on "ঐশ্বরিয়া-সালমানের ব্রেকআপের পেছনে দায়ী কে জানেন?"

Leave a Reply