আর নয় পেট ভরে ভাত খাওয়া !

“পেটপুরে ভাত খেলাম” বা “ভাত না খেলে মনে হয় পেটই ভরেনি” ইত্যাদি কথাগুলোর সাথে আমরা কমবেশি সকলেই পরিচিত। পেটপুরে ভাত খাওয়াটা আমাদের বাঙালি সংস্কৃতির সাথে ওতপ্রোত ভাবে জড়িয়ে আছে। কিন্তু আসলেই কি পেটপুরে ভাত খাওয়াটা ভালো? হ্যাঁ, ভাতে তেল নেই বিধায় এটা অনেক স্বাস্থ্যকর খাবার সন্দেহ নেই। কিন্তু পেটপুরে ভাত খাওয়াটা আসলে এমন মারাত্মক একটি অভ্যাস, যা আপনাকে টেনে নিয়ে যাবে মৃত্যুর দিকে! কীভাবে? চলুন জেনে নেই!

১) সারাদিনে অনেক ভাজাভুজি খান না আপনি, কোন কোমল পানীয় বা মিষ্টি খাবারও খান না, গুণে গুণে মাত্র ৩ বেলা খান। কিন্তু তবুও কমে না ওজন? এর কারণ হচ্ছে আপনি প্রয়োজনের চাইতে অতিরিক্ত ভাত খেয়ে ফেলছেন। ভাতে অন্যান্য খাবারের তুলনায় অনেক উচ্চ মাত্রার কার্বোহাইড্রেট থাকে, যা আপনার শরীরে অযথাই অনেকগুলো ক্যালোরি যোগ করে ফেলে। এই বাড়তি ক্যালোরি বাড়তি ওজন হয়ে জমে যায় শরীরে। চায়ের কাঁপে এক কাপ ভাত, যারা খুব পরিশ্রম করেন তাঁদের জন্য দুই কাপ ভাতই যথেষ্ট। সাথে খেতে হবে প্রচুর সবজি ও প্রোটিন। কিন্তু আমরা কেউ কি এত কম ভাত খাই? খাই না। সুতরাং বলাই বাহুল্য যে হু হু করে ওজন বাড়ে ও ওজন কমে না কিছুতেই।

Be the first to comment on "আর নয় পেট ভরে ভাত খাওয়া !"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*