আন্দোলনের মুখে অর্ধশতাধিক কারখানায় ছুটি ঘোষণা 

​শ্রমিক নির্ভর শিল্প গুলোর মধ্যে তৈরি পোশাক শিল্প অন্যতম।  যে শিল্প থেকে আমরা প্রতি বছর বিপুল পরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করে থাকি।  


সেই শিল্পের শ্রমিকেরা তাদের ন্যূনতম মজুরি বৃদ্ধির জন্য আন্দোলনে নেমেছে।  

আশুলিয়ার শ্রমিকেরা বেশ কিছুদিন ধরেই কর্মবিরতি পালন করছে।  মন্ত্রী তাদের আশ্বাস প্রদান করলেও সেই শ্রমিকেরা কাজে যোগদান করেনি।  

তার পরিবর্তে তারা অবস্থান নিয়েছে রাস্তায়।  এই পরিস্থিতিতে ওই অঞ্চলে অবস্থিত গার্মেন্টস গুলোতে ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে।  

ছুটি ঘোষণার পর আন্দোলন বৃদ্ধি পায়।  শ্রমিকেরা টঙ্গী- আশুলিয়া ইপিজেড সড়কের বিভিন্ন স্থানে অবস্থান নিয়ে রাস্তার যানবাহন ভাংচুর শুরু করে।  এর পর পরই পুলিশের সাথে দফায় দফায় সংঘর্ষ চলতে থাকে।  পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে লাঠিচার্জের পাশাপাশি টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে শ্রমিকদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়।  

এর পর ওই রাস্তায় যানবাহন পুনরায় চলাচল শুরু করে।  

যে কোনো অপ্রীতিকর পরিস্থিতি মোকাবেলা করার জন্য অতিরিক্ত আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য অবস্থান নিয়েছে।  

আন্দোলন এবং তার পরবর্তী পরিস্থিতি সম্পর্কে শিল্প পুলিশ ১ এর পরিচালক মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, শ্রমিকদের সাথে আলোচনা করে তাদেরকে দাবি মেনে নেওয়ার আশ্বাস দেওয়া হয়েছে। শ্রমিক নেতাদের সাথে কথা বলেও আন্দোলনের বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা চলছে। এ ছাড়া যেকোনো অপ্রীতিকর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে কারখানাগুলোর সামনে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েনসহ র্যাবের টহল জোরাদার করা হয়েছে।

Be the first to comment on "আন্দোলনের মুখে অর্ধশতাধিক কারখানায় ছুটি ঘোষণা "

Leave a Reply